প্রথম পাতা

The best time to plant a tree was 20 years ago. The second best time is NOW.

– Chinese proverb

এই বইটা তো নাও নিতে পারতেন হাতে?

অবশ্যই পারতেন। কিন্তু আপনি নিয়েছেন।

তবে, সবাই নেয়নি। আর - অনেকে নেবেন না। সেটাই কি স্বাভাবিক নয়?

অন্যের গল্প বাদ। আপনি নিয়েছেন সেটাই বড় কথা। কারণ - আপনি অনেকটাই আলাদা। দিন আপনাকে নিয়ে প্ল্যান করেনা, আপনি প্ল্যান করেন দিনকে নিয়ে।

আপনি প্রযুক্তিবিদ কিনা সেটা নিয়ে সমস্যা নেই আমার। আপনি 'অনুসন্ধিৎসু' বলে হাতে নিয়েছেন বইটা। তাতেই চলবে আমাদের। পরিসংখ্যান, সামান্য অংক হয়তোবা লাগবে সামনে, সেটাও শিখিয়ে নেবো পাশাপাশি। পরের বইগুলোতে। আর দরকার, বালতি ভর্তি 'কমন সেন্স'। আসলেই তাই। ভবিষ্যৎ দেখতে চাইলে।

আপনি এমন একটা প্রযুক্তি নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন যা গিলে ফেলছে আমাদের। ভালো অর্থে বললে প্রযুক্তিকে শেখানো হচ্ছে মানুষের মতো সিদ্ধান্ত নিতে। আমাদের সাহায্যের প্রয়োজনে। আমরা হয়তোবা ধরতে পারছিনা কিভাবে ঘটছে - তবে আমাদের আশেপাশের সবকিছুই পাল্টে যাচ্ছে এই 'মেশিন লার্নিং'য়ের প্রভাবে। আমরা চাই বা না চাই - জিনিসটা ঢুকে গেছে সবকিছুর ভেতরে। সন্তর্পণে। হেলথকেয়ার থেকে শুরু করে সরকারি কাজ, ট্রান্সপোর্টেশন ইন্ডাস্ট্রি - শিক্ষা - যা করতে চাইছেন জীবনে তার সবকিছু সহজ করে দিচ্ছে এই জিনিস। বুঝে যাবেন কি আছে সামনে তবে, কতো বড় ক্ষমতা আসছে মানুষের হাতে - সেটা বুঝতে পারছে খুব কম মানুষই। কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার শুরুতে যেখানে মেশিনকে শেখাতে হয় - সেখানেই দরকার মেশিন লার্নিং। অন্য কথায় বললে - কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তার একটা সাবসেট হচ্ছে মেশিন লার্নিং।

এদিকে, দুনিয়াও যাচ্ছে পাল্টে। 'ওপেন সোর্স ইন্টেলিজেন্স'এ প্রচুর দেশের পেটের খবর জানা যায় ইদানিং। ভবিষ্যৎ দেখার এই ক্ষমতা আয়ত্ব করছে মাত্র কয়েকটা ভিশনারি কোম্পানি। সঙ্গে যোগ দিয়েছে কয়েকটা 'চীনা' স্টার্টআপ। আর তাই, আজ আপনার প্রোডাক্ট না থাকলেও আপনি কারো না কারো প্রোডাক্ট। মুদ্রার এপিঠ নাহলে ওপিঠ।

আমরা না জানলে স্বভাবতঃই প্রোডাক্ট হবো অন্যের। নাকি নিজেই বানাবেন প্রোডাক্ট?

পৃথিবী এখন দুটো "এক্সট্রিম এন্ডে"। নিজে জন্য না হলে অন্যের জন্যও প্রোডাক্ট তৈরি করতে লাগবে এই স্কিল। এর মানে ভবিষ্যৎ প্রযুক্তির চাকরির জন্য দরকার এই জিনিস। ডাটাকে যে কথা বলাতে পারবে, সেই চালাবে বিশ্ব।

আর তাই, স্টার্টিং ইজ হাফ দ্য ব্যাটেল। আজই।

সিদ্ধান্ত আপনার।